অস্ত্র-মাদক উদ্ধার ও ওয়ারেন্ট তামিলে আইনশৃংখলা রক্ষায় বুড়িচং থানার সফলতা

32

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখায় পুলিশের মাসিক কল্যান সভায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে বুড়িচং থানা পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট। গতকাল মাসিক কল্যান সভায় শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতি স্বরূপ পুলিশ সুপার মোঃ সৈয়দ নুরুল ইসলাম বিপিএম (বার), পিপিএম শ্রেষ্ঠ অফিসারদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন।

জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার কুমিল্লা পুলিশ লাইন্স মিলনায়তনে মাসিক কল্যান সভায় গত জানুয়ারি মাসে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, ওয়ারেন্ট তামিলে জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হিসেবে প্রথম হয়েছেন বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোজাম্মেল হক পিপিএম। এছাড়াও বুড়িচং থানার দেবপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মোঃ সাজ্জাদ হোসেন অস্ত্র-মাদক উদ্ধার ও ওয়ারেন্ট তামিলে র‌্যাংকিংয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন। এছাড়া একই ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক নন্দন চন্দ্র সরকার শ্রেষ্ঠ মাদক-অস্ত্র উদ্ধারকারী কর্মকর্তা হিসেবে সম্মাননা গ্রহন করেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো:আব্দুল্লাহ্ আর মামুন, মোহাম্মদ শাখাওয়াৎ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ডিএসবি) আজিম-উল আহসান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তানভীর সালেহীন ইমন পিপিএম,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাথী রানী শমার্সহ জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকতার্বৃন্দ।শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতি পেয়ে অনুভুতি ব্যক্ত করেন শ্রেষ্ঠ ফাঁড়ি কর্মকতার্ বুড়িচং থানার দেবপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মোঃ সাজ্জাদ হোসেন ও উপ-পরিদর্শক নন্দন চন্দ্র সরকার। তারা জানান, বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ মো:মোজাম্মেল হক মহোদয়ের নির্দেশনায় আমরা আমাদের দায়িত্ব পালন করেছি। যার স্বীকৃতি পেয়েছি। অবশ্যই এমন স্বীকৃতি আমাদের আগামী দিনের দায়িত্ব ও কর্তব্যকে আরো তরান্বিত করবে।

এদিকে বুড়িচং থানার সার্বিক সফলতার বিষয়ে শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হওয়ার অনুভূতি ব্যক্ত করে বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোজাম্মেল হক পিপিএম বলেন,আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব পালনে আমি বদ্ধ পরিকর। সে অনুযায়ী আমি আমার থানার অধীন ফাঁড়ি ইনচার্জ ও কর্মকতার্দের নির্দেশনা দিয়েছি যে, আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে তাদের যে নির্দেশনা দিয়েছি তারা যেন তা যথাযথভাবে পালন করে। আর এভাবেই আমরা সাধারণ জনগণের সেবাসহ মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারসহ জনবান্ধব হয়ে সেবা প্রদান করতে পারবো।