কুমিল্লার উন্নয়নে সাংবাদিকদের পাশে চান এমপি বাহার   

46
হালিম সৈকত: বর্ণিল আয়োজনে কুমিল্লা রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১ টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। পরে এক বর্নাঢ্য র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন কুমিল্লা মহানগর আ’লীগের সভাপতি ও জাতীয় সংসদ সদস্য হাজী আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার। কুমিল্লা নজরুল ইন্সটিটিউটে ১৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর আসনের এমপি হাজী আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার। কুমিল্লা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ওমর ফারুকী তাপসের সভাপতিত্ব বক্তব্য রাখেন রোকেয়া পদক প্রাপ্ত নারীনেত্রী পাপড়ি বসু, কুমিল্লা সদর উপজেলা পরিষদের  মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হোসনে আরা বকুল, শিরোনাম সম্পাদক নীতিশ সাহা, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক ফারুক ও কুমিল্লা রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি গোলাম কিবরিয়া প্রমুখ। আলোচনা সভা শুরু হয় পবিত্র কোরআন তেলওয়াত এর মধ্য দিয়ে। এরপর জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন উপস্থিত সাংবাদিকবৃন্দ। বার্ষিক সাধারণ রিপোর্ট পেশ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন জাকির। শোক প্রস্তাব পেশ করেন সুমন কবির ভুইয়া। এর আগে প্রধান অতিথি কেক কেটে ও সংগঠনের প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন করেন। প্রধান অতিথি কুমিল্লার উন্নয়নে তাঁর পরিকল্পনা তুলে ধরে বলেন, আমি চাই সাংবাদিকরা কুমিল্লা নিয়ে  লিখুক। তাদের কলমের খোঁচায় উঠে আসুক কুমিল্লার জন্য কি প্রয়োজন,  কি করা দরকার। উঠে আসুক নানা অসঙ্গতি। তিন আরও বলেন, আমি যদি অন্যায় করি তা যেমন আপনাদের ভাল লাগবে না। তেমনি সাংবাদিকরা যদি মিথ্যা লিখে তাহলে আমারও ভাল লাগবে না। আমি সাংবাদিকদের পাশে আছি এবং থাকব। তিনি কুমিল্লা রিপোর্টাার্স ইউনিটিকে পাশে চেয়ে বলেন,  কুমিল্লার উন্নয়নের জন্য আপনারা কলম ধরেন। আপনাদেরকে সাথে নিয়ে আমি কুমিল্লাকে এগিয়ে নিতে চাই। আমার শ্লোগান কুমিল্লা এগোলে বাংলাদেশ এগোবে, এটা এখন জাতীয় পর্যায়ে আলোচিত হচ্ছে। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন কুমিল্লা রিপোর্টার্স ইউনিটির  যুুগ্ম সম্পাদক আবু মুসা ও আনোয়ার হোসেন । এ সময় উপস্থিত ছিলেন এটিএন বাংলার খায়রুল আহসান মানিক, দেশ টিভির এম ফিরোজ মিয়া, গাজী টিভির সেলিম রেজা মুন্সী,  বৈশাখী টিভির আনোয়ার হোসেন,  সময় টিভির বাহার রায়হান,   শিরোনামের মোতাহার হোসেন মাহবুব, আবদুল আজিজ,  জানে আলম দুলাল, সৈয়দ আহমদ লাভলু, হাবিব জালাল, হালিম সৈকত,  নুরুল ইসলাম, সোহরাব সুমন, মাহফুজ নান্টু, জহিরুল হক বাবু, আমেনা বেগম, রফিকুল ইসলাম,  গোলাম কিবরিয়া, মেক রানা, আসাদুল হক, ফারুক আজম, আলে ইমরান, সাইফুল সুমন, জুয়েল খন্দকার, জাইফুল্লাহ খন্দকার, আজগর হোসেন, ওমর শারিদ বিধান ও জহির মারুফ প্রমুখ।