1. bpdemon@gmail.com : Daily Kaljoyi : Daily Kaljoyi
  2. ratulmizan085@gmail.com : Daily Kaljoyi : Daily Kaljoyi
২৩বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের বি,টি,পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে
বাংলাদেশ । বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ।। ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি
ব্রেকিং নিউজ
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় বিলুপ্তির পথে দেশীয় প্রজাতির ছোট-বড় মাছ টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে শত মানুষের একমাত্র ভরসা ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকো পুষ্টিকর-সুস্বাদু জাম্বুরা চাষাবাদেও এগিয়ে মৌলভীবাজারের জুড়ী কুমিল্লার মুরাদনগরে জমি বিরোধে চাচীকে পিটিয়ে জখম,বিএনপি নেতা আটক মৌলভীবাজারে ডিবির জালে ইয়াবাসহ যুবক আটক কু‌মিল্লার ৩ উপজেলায় র‌্যা‌বের পৃথক অভিযানে মাদকদ্রব্যসহ আটক-৫ ১৫দফা আদায়ে যশোরের বেনাপোলে কর্মবিরতী,বন্ধ রয়েছে পণ্য পরিবহন কুমিল্লার বুড়িচংয়ে আগুনে পুড়ে মরলো শেকলবন্দী কলেজছাত্র মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে চিকিৎসা নিতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার নারী,ভন্ড কবিরাজ আটক কক্সবাজারের পেকুয়ায় গৃহবধূ ও স্বজনদের পিটিয়ে জখম

২৩বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের বি,টি,পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে

মিজানুর রহমান :
  • প্রকাশিত: রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪৭৬ বার পড়েছে
২৩বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের বি,টি,পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে
২৩বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের বি,টি,পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার বি.টি.পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ শ্রেণিকক্ষ নিয়ে চরম উদ্বিগ্ন উৎকন্ঠায় শিক্ষক ও অভিভাবকরা।গত ২৩ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি এই বিদ্যালয়ে। জরাজীর্ণ অবস্থার সঙ্গে যোগ হয়েছে আসন সংকট।আগামী ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল খোলার ঘোষণায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তারা।

বিদ্যালয়ের সহঃপ্রধান শিক্ষক রেজাউল হক বলেন,বিদ্যালয়ে মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪১২ জন।পাঠদানের জন্য ৫টি সেমি পাকা ক্লাস রুম রয়েছে।এর মধ্যে একটি রুম অনেক আগেই পরিত্যাক্ত ঘোষণা করা হয়েছে।আর টিনশেড ভবনটি দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় জরাজীর্ণ হয়ে ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

অভিভাবক সাইফুল ইসলাম ও আকরাম হোসেন বলেন,দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকায় এর আগে শ্রেণি কক্ষ নিয়ে কোন মাথাব্যথা ছিলোনা।এখন বিদ্যালয়ের ঘরের টিন ফুটো হয়ে আকাশ দেখা যায় একটু বৃষ্টি হলে শিক্ষার্থীসহ বই খাতা ভিজে যায়,আসন সংকটে এখানে স্বাস্থ্যবিধি পালন নিয়ে শংকা দেখা দিয়েছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক(গ্রন্থাগার ও তথ্যবিজ্ঞান) শামিম রেজা জানান,১৯৯০ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়ে ১৯৯৮ সালে এমপিও ভুক্ত হলেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি।আজ প্রায় ২৩ বছর হলো সরকারী ভাবে অবকাঠামোর জন্য কোন বরাদ্দ আমরা পাইনি।উপজেলার মধ্যে আমাদের বিদ্যালয়টি সবচেয়ে অবহেলিত।শুধুমাত্র দুর্বল অবকাঠামোর কারনে এই বিদ্যালয়ে সচেতন অভিভাবক তাদের ছেলে মেয়েকে ভর্তি করতে চাননা।

বাড়ী থেকে দুরে হলেও অন্য স্কুলে ভর্তি করান তাদের বাচ্চাদের।মাত্র চারটি কক্ষে ৪১২জন শিক্ষার্থীকে ক্লাশ করানো সম্ভব নয়।সঃশিঃ শামিম আরো বলেন,ইতি মধ্যে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাননীয় সাংসদ আঃকাঃমঃ সরওয়ার জাহান বাদশাহ এমপি বিল্ডিং বরাদ্দ দিয়েছে আশা রাখবো আগামীতে আমাদের বিদ্যালয়ের অবকাঠামোর দিকে মাননীয় সাংসদ সু-দৃষ্টি রাখবেন।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সর্দার আবু সালেক বলেন,দৌলতপুরের অন্যান্য এমপিও ভুক্ত প্রতিষ্ঠানের চেয়ে বি,টি,পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি শিক্ষার মানোন্নয়নে ভালো ভুমিকা রাখলেও অবকাঠামোর দিক থেকে পিছিয়ে আছে,আশা রাখি আগামীতে উক্তপ্রতিষ্ঠানটিও সর্ট টাইমে সরকারী বরাদ্দের অবকাঠামো পাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
প্রকাশক কর্তৃক জেম প্রিন্টিং এন্ড পাবলিকেশন্স, ৩৭৪/৩ ঝাউতলা থেকে প্রকাশিত এবং মুদ্রিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Hi-Tech IT BD