1. bpdemon@gmail.com : Daily Kaljoyi : Daily Kaljoyi
  2. ratulmizan085@gmail.com : Daily Kaljoyi : Daily Kaljoyi
নীলফামারীতে তীব্র জ্বালানী তেল সংকটে চরম ভোগান্তি, বন্ধ প্রায় ৩৬ টি পাম্প
বাংলাদেশ । বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২ ।। ২৩শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
ব্রেকিং নিউজ
দোয়ারাবাজারে অফিসার্স ক্লাবের উদ্যোগে ৫৭০ পরিবারে ত্রাণ বিতরণ তামাক আইন শক্তিশালী করতে পদক্ষেপ নিবে সরকার : আ.ক.ম মোজাম্মেল হক মাদ্রাসার সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ খোরশেদ আলমের প্রথম আলোচনা সভা মহালক্ষীপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষা সামগ্রী বিতরন ইবিতে আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী উৎসব শুরু বন্যার্তদের পাশে দাড়ালেন স্বাস্থ্য ও পঃ কর্মকর্তার ডাঃ আবু সালেহীন খান কচুয়ায় ৪ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার চাঁদপুরের মতলবে ভুয়া বিচারপতি আটক বন্যা পরিস্থিতির ভয়াবহতার মধ্যে সিলেট বিভাগে বয়ে গেছে কালবৈশাখী ঝড় সৈয়দপুরে নদীতে লাফ দিয়ে টিকটক করাকালে ডুবে গিয়ে কিশোরের মৃত্যু

নীলফামারীতে তীব্র জ্বালানী তেল সংকটে চরম ভোগান্তি, বন্ধ প্রায় ৩৬ টি পাম্প

শাহজাহান আলী মনন :
  • প্রকাশিত: সোমবার, ৯ মে, ২০২২
  • ৫০ বার পড়েছে

চাহিদা অনুযায়ী পেট্রোল ও অকটেন সরবরাহ না থাকায় নীলফামারীতে জ্বালানী তেলের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। এতে বন্ধ হয়ে পড়েছে জেলার ছয় উপজেলার প্রায় ৩৬টি তেল পাম্প। গত সাতদিন ধরে ওই পাম্পগুলোতে তেল বিক্রি বন্ধ রয়েছে। তবে ডিপো থেকে সরবরাহ না থাকায় এমনটি হচ্ছে বলে দাবী ব্যবসায়ীদের। পেট্রোল না থাকায় বেশী দামে অকটেন ব্যবহার করতে হচ্ছে চালকদের। কিন্তু সেক্ষেত্রেও মিলছে স্বল্প পরিমানে। এই অবস্থা চলতে থাকলে আগামী ২-৩ দিনের মধ্যে মজুদকৃত অকটেনও শেষ হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, নানান অজুহাত দেখিয়ে তেল কোম্পানিগুলো কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করেছে। তবে এখন পর্যন্ত ডিজেল ও কেরোসিনের সরবরাহ ঠিক রয়েছে। এদিকে পাম্পগুলোতে পেট্রোল সংকট থাকায় চালকরা বিভিন্ন ষ্টেশন ঘুরে ঘুরে পেট্রোল না পেয়ে বাধ্য হয়ে গাড়িতে অকটেন ব্যবহার করেছেন। এ অবস্থায় খরচ বেড়ে যাওয়া আর পরিমান মতো জ্বালানী তেল না পাওয়ায় চালকসহ সাধারণ মানুষ পড়েছেন চরম বিপাকে। মোটর সাইকেল চালক জহিরুল ইসলাম বাবু বলেন, তেল সংকটের কারণে আমাদের অনেক ভোগান্তি হয়েছে। আজ আমি ৪-৫ পাম্প ঘুরে একটি পাম্পে তেল নিলাম। তাও আবার পেট্রোল না অকটেন। ২শ’ টাকার বেশি দিচ্ছে না। তিনি বলেন, এভাবে চলতে থাকলে গাড়ি চালানো অসম্ভব হয়ে যাবে।৷ আমরা চাই দ্রুত পেট্রোল ও অকটেন সরবরাহ করা হউক।

জ্বালানী সংকটের কথা স্বীকার করলেও বিভিন্ন সিন্ডিকেটের কাছে নিজেদের নিরূপায় দাবী করছেন পাম্পের কর্মচারীরা । য়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকার খালেক ফিলিং স্টেশনের ম্যানেজার শাহীন আলম জানান, গত ৭দিন আগেই আমাদের পেট্রোলের ষ্টোক শেষ হয়েছে। এখন অকটেন বিক্রি করছি। অকটেনও শেষ হওয়ার পথে। নীলফামারী জেলা পেট্রোল পাম্প ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি আকতার হোসেন স্বপন জানান, গত দুই সপ্তাহ ধরে তেলের জন্য ব্যাংকের মাধ্যমে পে-অর্ডার পাঠানোর পরও কোম্পানীর ডিপোগুলো থেকে পেট্রোল ও অকটেন সরবরাহ করছে না। বর্তমানে যতটুকু অকটেন আছে তা দু-একদিনে চলবে। এরপর পাম্পগুলো বন্ধ হয়ে যাবে। মজুদ না থাকার কারণে গত কয়েকদিন ধরে পাম্পগুলো পেট্রোল বিক্রি করতে পারেনি। এতে ব্যবসায়ী ও ভোক্তা দু’পক্ষই ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, ডিপো থেকে বিপিসি’র মাধ্যমে যদি তেল বন্টন করা যেত তাহলে তেলের সংকট অনেকটাই কমে যেত। (ছবি আছে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
প্রকাশক কর্তৃক জেম প্রিন্টিং এন্ড পাবলিকেশন্স, ৩৭৪/৩ ঝাউতলা থেকে প্রকাশিত এবং মুদ্রিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Hi-Tech IT BD